সিন্ডিকেটে জিম্মি বিদ্যুৎ খাত

অপরিকল্পিতভাবে নির্মিত বিদ্যুৎ প্রকল্পই এখন সরকারের গলার কাঁটা। জ্বালানি সংকটে প্রকল্পগুলো মুখ থুবড়ে পড়েছে। একই সঙ্গে বন্ধ থাকার পরও গুনতে হচ্ছে ক্যাপাসিটি চার্জ। আর ‘মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা’ হয়ে দেখা দিয়েছে তীব্র দাবদাহ এবং চরম লোডশেডিং। সবমিলে এই মুহূর্তে বিদ্যুৎই সরকারকে বড় ধরনের অস্বস্তিতে ফেলেছে। কতদিনে এই অস্বস্তি দূর হবে, তা নির্দিষ্ট করে বলতে পারছেন না কেউ। তবে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘১০ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে এই অবস্থা থেকে যেন বের হয়ে আসা যায়, সেই চেষ্টা করছি।’ রোববার সচিবালয়ে তিনি এ কথা বলেন। এতে স্পষ্ট-জ্বালানি সংকটের কারণে চলমান লোডশেডিং আরও কিছুদিন থাকবে।

পূর্বের খবর৭২০ কর্মকর্তার পদোন্নতি চায় পুলিশ সদর দপ্তর
পরবর্তি খবরঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে অর্থনীতি