সাকিব-তামিমের ‘ঝগড়া’, যা বললেন হার্শা ভোগলে

তামিম বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়ার পর সংবাদমাধ্যমে তাকে নিয়ে একাধিক ভুল ইনফরমেশনে নিউজ প্রকাশিত হতে দেখে নিজের অবস্থান ক্লিয়ারে ফেসবুক লাইভে ভিডিও বার্তায় কথা বলেন।

তামিমের ভিডিওবার্তা দেখে পাল্টা বক্তব্য দেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তাদের দুইজনের মুখোমুখি অবস্থান দেখে হতাশ দেশের মানুষের মতো প্রতিবেশী দেশ ভারতের ক্রীড়াবিদরাও।

ভারতীয় ক্রীড়া বিশ্লেষক ও ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে লিখেছেন, ‘বাংলাদেশ এমন একটি দল, যারা সব সময়ই আবেগতাড়িত। বড় টুর্নামেন্টের (বিশ্বকাপ) আগে তাদের দুই খেলোয়াড় যেভাবে প্রকাশ্য-ঝগড়ায় লিপ্ত হয়েছে, আমি মনে করি সেটা আদর্শ কিছু নয়।’

বুধবার এক ভিডিও বার্তায় তামিম বলেন, ‘বোর্ডের টপ লেভেল থেকে একজন ফোন করে আমাকে বললেন, ‘‘তুমি বিশ্বকাপে যাবা, কিন্তু তোমাকে তো ম্যানেজ করে খেলাতে হবে। একটা কাজ করো, তুমি প্রথম ম্যাচ খেলিও না।’’ আমি বলেছি, এখনও ১২/১৩ দিন সময় আছে। এই সময়ের মধ্যে তো আমি ভালো অবস্থায় থাকব। তাহলে কী কারণে খেলব না? তখন তিনি বললেন, ‘‘আচ্ছা, তুমি যদি খেলো তাহলে আমরা পরিকল্পনা করছি, তুমি নিচের দিকে খেলবা।’’

এদিন রাতে একটি বেসরকারি চ্যানেলের কাছে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সাকিব বলেন ‘রোহিত শর্মার মতো প্লেয়ার ৭ নম্বর থেকে ওপেনিংয়ে এসে ১০ হাজার রান করে ফেলেছে। তামিম যদি দলের প্রয়োজনে মাঝে মাঝে ৩-৪ এ খেলে বা ব্যাটিংয়ে নামে তাহলে কি খুব প্রবলেম হয়? এটা আসলে আমার মনে হয় অনেকটা বাচ্চা মানুষের মতো, যে আমার ব্যাট আমিই খেলবো আর কেউ খেলতে পারবে না। টিমের প্রয়োজনে যেকেউ যেকোনো জায়গায় খেলতে রাজি থাকা উচিত। টিম ফার্স্ট।’

পূর্বের খবরপ্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে বিআইডব্লিউটিএর উপহার নৌকা বাইচ, মানুষের ঢল
পরবর্তি খবরখেরসনে রুশ হামলায় নিহত ৩ নারী