সপ্তাহজুড়ে ভূমিকম্পের পর আইসল্যান্ডে আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুৎপাত

সপ্তাহজুড়ে ঘন ঘন ব্যাপক ভূমিকম্পের পর আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত ঘটেছে আইসল্যান্ডের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রেইকানেস শহরে। স্থানীয় সময় সোমবার অগ্ন্যুৎপাতের কারণে বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে লাভা ও ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়ে। এতে পার্শ্ববর্তী শহর হুমকির মধ্যে রয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির আবহাওয়া অধিদপ্তর। খবর রয়টার্সের

বার্তা সংস্থা রয়টার্স অগ্ন্যুৎপাতের ছবি ও ভিডিও প্রকাশ করেছে। এতে দেখা গেছে, ফাটল থেকে লাভা ছড়িয়ে পড়ছে। রাতের অন্ধকার আকাশের বিপরীতে লাভার উজ্জ্বল হলুদ ও কমলা রং অদ্ভুত এক দৃশ্যের জন্ম দিচ্ছিল।

রেইকানেস উপদ্বীপে অগ্ন্যুৎপাতের ভয়ে গত মাসে কর্তৃপক্ষ জেলেদের শহর বলে পরিচিত গ্রিন্দাভিকের প্রায় ৪ হাজার বাসিন্দাকে সরিয়ে নেয়।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে স্থানীয়দের জন্য সতর্কতা জারি করে বলা হয়, ‘গ্রিন্দাভিক শহরের উত্তরে হাগাফেল পর্বতে অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়েছে।’ গ্রিন্দাভিক শহরটি থেকে মাত্র কয়েক কিলোমিটার দূরে এই আগ্নেয়গিরি।

অগ্ন্যুৎপাত ও ভূমিকম্পের ফলে আইসল্যান্ডের রাজধানী রিকজাভিক থেকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত এই পর্বতের পাদদেশে একটি ফাটল দেখা দিয়েছে, যা গ্রামের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। অগ্ন্যুৎপাতের ফলে রিকজাভিকের কাছাকাছি বিমানবন্দর খোলা থাকলেও অসংখ্য ফ্লাইট বিলম্বিত হচ্ছে।

স্থানীয় পুলিশ বলছে, তারা অগ্ন্যুৎপাতের কারণে সতর্কতা বাড়িয়েছে এবং ওই অঞ্চলে জনসাধারণকে না যেতে সতর্ক করেছেন উদ্ধারকর্মীরা।

আইসল্যান্ড ইউরেশিয়া ও উত্তর আমেরিকার টেকটোনিক প্লেটের মধ্যে অবস্থিত, যা পৃথিবীর দীর্ঘতম টেকটোনিক প্লেট। এর মধ্যে দুটি প্লেট বিপরীত দিকে সরে যাওয়ার কারণে আইসল্যান্ডে ভূমিকম্প ও অগ্ন্যুৎপাতের প্রবণতা বেশি।

পূর্বের খবরউত্তরা ব্যাংকে বঙ্গবন্ধুর শেয়ার পেলেন শেখ হাসিনা ও রেহানা
পরবর্তি খবরসার্বক্ষণিক ‘আইবাস’ চালু রাখতে অর্থ সচিবকে ইসির চিঠি