বাংলাদেশ ছাড়ার আগে যে বার্তা দিলেন মার্তিনেজ

৩৬ বছর পর আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ের অন্যতম মহানায়ক গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেজ। ২০২২ কাতার বিশ্বকাপ ফাইনালে গোলপোস্টের নিচে তার শৈল্পিক নৈপুণ্যের স্মৃতি বাংলাদেশের ভক্তদের হৃদয়ে আজও অমলিন। সেই তিনি কয়েক ঘণ্টার অতিথি হয়ে এলেন ঢাকায়। সোমবার মাত্র ১১ ঘণ্টার ঝটিকা সফরে বাংলাদেশে এসেছিলেন মার্তিনেজ। কিন্তু তার দেখা পেলেন না ফুটবল অনুরাগীরা।

অনেকে দুধের স্বাদ ঘোলে মিটিয়েছেন টেলিভিশনের পর্দায় মহাতারকাকে দেখে। ভোর সাড়ে ৫টায় মার্তিনেজ ঢাকায় আসছেন, তা আগেই জানা গিয়েছিল। সকালে কিছু সমর্থককে দেখা গেল বিমানবন্দরে। অনেকেই হোটেল ওয়েস্টিনের বাইরে দাঁড়িয়েছিলেন। গাড়ির কাচের ফাঁক গলে যদি একনজর দেখা যায় প্রিয় নায়কের মুখ। তবে মার্তিনেজের আঁটোসাঁটো শিডিউলের কারণে ভক্তদের আশা পূরণ হয়নি। গণমাধ্যমকর্মীরাও মার্তিনেজের সাক্ষাৎ পাননি।

কলকাতার বিমানে ওঠার আগে ইনস্টাগ্রাম বার্তায় মার্তিনেজ লিখেছেন- ‘নেক্সট ভেনচার ও ফান্ডেডনেক্সটের সঙ্গে বাংলাদেশে অসাধারণ একটা সফরে এসেছিলাম আমি। এ দেশের মানুষের যত্ন, ভালোবাসা ও অতুলনীয় আতিথেয়তা আমার হৃদয় জয় করেছে। আমি নিকট ভবিষ্যতে এই সুন্দর দেশটিতে আবারও আসতে চাই।’

মার্তিনেজ এরপর লিখেছেন- ‘প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, পুলিশ বাহিনী ও বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে আমি কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই। একই সঙ্গে কৃতজ্ঞতা জানাই নাম না জানা আরও অনেককে, এই সফরে যাদের অবদান মোটেও কম নয়। বাংলাদেশের সঙ্গে আমার যে বিশেষ সম্পর্ক, আপনারা সবাই তার অংশ। আমি এই দেশে আমার হৃদয়ের একটা অংশ রেখে যাচ্ছি। পরবর্তী সফরের আগপর্যন্ত সবাইকে বিদায় জানাই। আমি বাংলাদেশের বাজপাখি হতে পেরে মুগ্ধ।’

পূর্বের খবরইউক্রেনে যে দুই স্থানে সব থেকে বেশি সেনা মোতায়েন করছে রাশিয়া
পরবর্তি খবরবিয়ের জন্য আমি এখনো পরিণত নই