বাংলাদেশের হয়ে খেলতে আগ্রহ দেখায়নি হামজা

হামজা চৌধুরীকে নিয়ে বাংলদেশ ফুটবল ফেডারেশন আশার বানী শোনালেও ভিন্ন কথা বলছেন সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিন। তিনি জানান বাংলাদেশের হয়ে খেলতে বাফুফের কাছে এখনও কোনো আগ্রহ দেখাননি লেস্টার সিটির এই ফুটবলার। তবে হামজা লাল সবুজদের হয়ে খেলতে চাইলে তাকে সব ধরণের সুযোগ সুবিধা দেয়ার কথা জানান কাজী সালাহউদ্দিন।

দেশের ফুটবলে এখন আলোচিত নাম হামজা দেওয়ান চৌধুরী। লাল সবুজের জার্সি গায়ে লেস্টার সিটির এই ফুটবলার মাঠ মাতাবেন এমন স্বপ্ন দেখেন দেশের ফুটবল ভক্তরা। হাজামাকে নিয়ে বেশ পজেটিভ ছিলো বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনও। তাকে জাতীয় ফুটবল দলের হয়ে খেলাতে বছরের শুরু থেকেই কাজ শুরু করে বাফুফে।

কিছুদিন আগেই লাল-সবুজ পাসপোর্ট পেতে লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে আবেদন করতে যান হামজা। তবে গুরুত্বপূর্ণ কাগজ না নিয়ে আসায় জটিলতায় পড়তে হয় তাকে। তবে কিছুদিন সেই জটিলতা কেটে যাওয়ার কথা জানান বাফুফে সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন তুষার। এক মাসের মধ্যে হামজা বাংলাদেশের পার্সপোর্ট হাতে পাবে বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন বাফুফে সাধারণ সম্পাদক।

তবে এবার ভিন্ন কথা বলছেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিন। বাংলাদেশের হয়ে খেলতে বাফুফের কাছে এখনও আগ্রহ প্রকাশ করেনি হামজা চৌধুরী।

বাফুফে সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিন বলেন, ‘হামজা এখন পর্যন্ত আমাকে বলেনি সে (বাংলাদেশের) খেলতে চায়। এটা শুধু গণমাধ্যমে শোনা কথা। তাকে এখানে আসতে বলেন এবং বলতে বলেন সে খেলতে চায়। কী করতে হবে আমরা করে দিবো। হামজা আমাদের কোন চিঠিও পাঠায়নি যে সে খেলতে চায়। তার ক্লাবও তাকে ছাড়পত্র দেয়নি।’

হামজা চাইলেই খেলতে পারবেন লাল-সবুজদের হয়ে। সেক্ষেত্রে তাকে সব ধরণের সুযোগ সুবিধা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন বাফুফে সভাপতি।

কাজী সালাহউদ্দিন বলেন, ‘হামজা যদি খেলতে আসে তাকে আমরা স্বাগত জানাবো। যা চায় তাই দিবো। তবে সমস্যা হচ্ছে, হামজা কখনও এই কথা বলেনি আপনারা বলতেছেন সে বাংলাদেশের হয়ে খেলতে চায়।’

গেলো মৌসুমে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছেন হামজা। নিজ দল লেস্টারকে চ্যাম্পিয়নশিপ লিগ থেকে উন্নীত করেছেন প্রিমিয়ার লিগে।

পূর্বের খবরকঙ্গনার গালে থাপ্পড় নিরাপত্তাকর্মীর, দেশজুড়ে তোলপাড়
পরবর্তি খবরঅবশেষে বেনজীরের সম্পদ উচ্ছেদে যাচ্ছে প্রশাসন