নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে রাশিয়া থেকে ব্যাপকভাবে তেল কিনছে তুরস্ক

পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে রাশিয়ার কাছ থেকে ব্যাপকভাবে তেল কেনা শুরু করেছে ন্যাটো জোটের অন্যতম সদস্য তুরস্ক। এতে ২০২৩ সালে তেল ও পরিশোধিত পণ্য আমদানি করে প্রায় ২০০ কোটি ডলার খরচ সাশ্রয় করেছে তুরস্ক।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম রয়টার্সের বরাত দিয়ে রুশ সংবাদ মাধ্যম আরটি জানিয়েছে, তুরস্কের ইতিহাসে বর্তমানে রাশিয়ার কাছ থেকে সবচেয়ে বেশি তেল কিনছে দেশটি।

প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, পশ্চিমা প্রভাব বলয়ে থাকা দেশগুলোর মধ্যে তুরস্কই এখন রাশিয়ার তেলের সবচেয়ে বড় আমদানিকারকে পরিণত হয়েছে। মস্কোর ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে ইউরোপের বহু দেশ রাশিয়ার কাছ থেকে তেল ও গ্যাস আমদানি স্থগিত রেখেছে।

ন্যাটো জোটের সদস্য হওয়া সত্বেও ইউক্রেন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে তুরস্ক রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর পাশাপাশি দেশটি রাশিয়ার সঙ্গে অর্থনৈতিক সহযোগিতা এবং দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য অনেক বেশি গভীর করেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের তথ্য অনুসারে, রাশিয়ার কাছ থেকে তেল ও পরিশোধিত পণ্য আমদানি করে তুরস্ক ২০২৩ সালে প্রায় ২০০ কোটি ডলার খরচ বাঁচিয়েছে। রয়টার্স বলছে, পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও আঙ্কারা তার প্রতিবেশী রাশিয়ার কাছ থেকে আরো পণ্য আমদানি করতে চায়।

বিভিন্ন তথ্যচিত্র থেকে জানা যাচ্ছে যে, রাশিয়ার কাজ থেকে তুরস্ক নভেম্বর মাসে প্রতিদিন চার লাখ ব্যারেল তেল কিনেছে। গত মাসে রাশিয়া সমুদ্রপথে যত তেল বিক্রি করেছে তার শতকরা ১৪ ভাগ একা তুরস্ক কিনেছে। রয়টার্স বলছে, আগামী মাসগুলোতে তুরস্ক এই তেল কেনার পরিমাণ আরো বাড়িয়ে দিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পূর্বের খবরগত ১০ বছরে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় কোনো অনিয়ম হয়নি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
পরবর্তি খবর‘নির্বাচনের পর সরকারকে বেকায়দায় ফেলার ক্ষমতা কারো নেই’