তাকওয়া পরিবহণ থেকে ফেলে নারী শ্রমিককে হত্যা!

গাজীপুরের শ্রীপুরে তাকওয়া পরিবহণের একটি চলন্ত বাস থেকে ধাক্কা দিয়ে এক শ্রমিককে পিষে মারল অজ্ঞাতনামা চালক। ঘটনার পরপরই দ্রুত পালিয়ে যায় বাসটি।

এ ঘটনার পরপরই ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কে বেশ কয়েকটি মিনি তাকওয়া পরিবহণের বাস ভাংচুর চালিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা। বেশ কয়েকটি তাকওয়া মিনি বাস আটক করে স্থানীয়রা। অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছে।

শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কের এমসি বাজার এলাকার মেঘনা সাইকেল কারখানার সামনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নারী পোশাক শ্রমিক চম্পা (৩২) ময়মনসিংহ জেলার ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মাইজবাগ নিজগাঁও গ্রামের আবুল কালামের স্ত্রী। তিনি শ্রীপুর পৌর এলাকার স্থানীয় হ্যামস নামক একটি পোশাক কারখানার শ্রমিক ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শী বালুবাহী শ্রমিক জালাল উদ্দিন বলেন, আমরা কয়েকজন শ্রমিক রাস্তার পাশে বসে ছিলাম। হঠাৎ করে একটি বিকট শব্দ শুনে বাসের সামনে দৌড়ে গিয়ে দেখি এক নারী রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে আছে। এ সময় দ্রুত বাসটি চলে যায়। এরপর ওই নারীকে অটোরিকশা যোগে দ্রুত মাওনা চৌরাস্তা এলাকার একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। কিন্তু তার কোনো স্বজন না থাকায় হাসপাতালের চিকিৎসক চিকিৎসা করেনি। এর পাঁচ মিনিট পর তার মৃত্যু হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, নারীকে বাস থেকে ফেলে চাপা দেওয়ার বিষয়টি আমিসহ বেশ কয়েকজন দেখেছি। এ সময় বাসের ভেতর চেঁচামেচির আওয়াজ আসছিল।

মাওনা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কংকন কুমার বিশ্বাস জানান, শুনেছি একজন নারীকে বাস থেকে ফেলে হত্যা করা হয়েছে আর তার স্বজনরা লাশ নিয়ে গেছে। জড়িত বাসটি শনাক্তের চেষ্টা করা হচ্ছে। বাসটি শনাক্ত করা গেলেই প্রকৃত ঘটনা বের হয়ে আসবে।

পূর্বের খবরবাবুগঞ্জে উন্নয়ন প্রকল্পের কোটি টাকা লোপাট
পরবর্তি খবরদেশের নাম বদল বিতর্কে কঙ্গনাও