জব্দ করা ইরানি গোলাবারুদ ইউক্রেনে পাঠাল যুক্তরাষ্ট্র

জব্দ করা প্রায় ১১ লাখ ইরানি গোলাবারুদ ইউক্রেনে সরবরাহ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। গত সোমবার এই অস্ত্র পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে মার্কিন সেনাবাহিনী। ধারণা করা হচ্ছে, এই অস্ত্র-গোলাবারুদ রাশিয়ার বিরুদ্ধে ইউক্রেনের যুদ্ধকে আরও গতিশীল করবে।

গত বছরের শেষের দিকে আরব উপসাগরে এই অস্ত্র জব্দ করা হয়েছিল। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এ খবর জানিয়েছে।

বুধবার মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক গারল্যান্ড বলেছেন, এই অস্ত্র হস্তান্তর একটি কর্তৃত্ববাদী শাসনের বিরুদ্ধে ইউক্রেনের জনগণের লড়াইয়ে সহযোগিতা করবে। স্বাধীনতা, গণতন্ত্র ও আইনের শাসনের জন্য আমরা আইনি কার্যক্রম চালিয়ে যাব।

যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছ, ২০২২ সালের ৯ ডিসেম্বর ১১ লাখ ৭.৬২ এমএম গোলা জব্দ করেছে মার্কিন নৌবাহিনী। মারওয়ান–১ নামের একটি জাহাজ থেকে এসব গোলাবারুদ জব্দ করে তারা। ইরানের বিপ্লবী গার্ডের পাঠানো এসব গোলা ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীদের কাছে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। জাতিসংঘের আরোপিত অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘিত হওয়ায় এসব জব্দ করা হয়।

মার্কিন আইন মন্ত্রণালয় ইরানের কাছ থেকে ৯ হাজারের বেশি রাইফেল, ২৮৪টি মেশিনগান, ১৯৪টি রকেট লঞ্চার, ৭০টির বেশি ট্যাংক বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রেরও মালিকানা পেতে চেষ্টা করছে।

এমন সময় জব্দ করা ইরানি অস্ত্র ইউক্রেনে পাঠানো হলো যখন পশ্চিমা দেশগুলো নিজেদের মজুত ফুরিয়ে যাওয়া নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করছে এবং কিয়েভকে অস্ত্র সরবরাহ অব্যাহত রাখা নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে রয়েছে। ওয়ারশ সিকিউরিটি ফোরামে ন্যাটোর সবচেয়ে সিনিয়র সামরিক কর্মকর্তা অ্যাডমিরাল রব বাউয়ার মঙ্গলবার বলেছেন, ‘পাত্রের তলার অংশটা এখন দেখা যাচ্ছে। ইউক্রেন প্রতিদিন কয়েক হাজার গোলাবর্ষণ করছে। এগুলোর বেশিরভাগ সরবরাহ করছে ন্যাটো।’ তিনি পশ্চিমা দেশগুলোর সরকার ও সমরাস্ত্র উৎপাদনকারীদের আরও দ্রুতগতিতে অস্ত্র উৎপাদনের আহ্বান জানিয়েছেন।

পূর্বের খবরনীতি সুদহারে বড় পরিবর্তন, বাড়বে ঋণ আমানত সুদ
পরবর্তি খবরবিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে যে বার্তা দিলেন বাবর