গাজায় ইসরাইলি আগ্রাসন, ৪ হাজার ছাড়াল শিশুর মৃত্যু

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় দখলদার ইসরাইলি বাহিনীর নির্বিচার হামলা অব্যাহত রয়েছে। গত এক মাসের নৃশংস হামলায় নিহতের সংখ্যা ৯ হাজার ৭০০ ছাড়িয়ে গেছে। এর মধ্যে শিশুর সংখ্যাই চার হাজারের বেশি। ইসরাইলের বর্বর বোমা হামলায় ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে গাজা।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা জানিয়েছে, ইসরাইলি বাহিনী গাজার মসজিদ, গির্জা, স্কুল, হাসপাতাল, শরণার্থী শিবিরসহ বেসামরিক মানুষের বাড়িঘর সব জায়গায় হামলা চালিয়ে আসছে।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে আজ সোমবার (৬ নভেম্বর) সংবাদমাধ্যমটির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গাজায় চলমান যুদ্ধে অন্তত ৪ হাজার ৮ শিশু নিহত হয়েছে এবং গত প্রায় এক মাসে ইসরাইলি বোমা হামলায় মৃতের সংখ্যা ৯ হাজার ৭৭০ জনে পৌঁছেছে।

গাজার আল আকসা হাসপাতালের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রোববার বিকালে মধ্য গাজার বুরেজি শরণার্থী শিবিরে একটি স্কুলের কাছে কয়েকটি বাড়িতে ইসরাইলি বিমান হামলায় কমপক্ষে ১৩ জন নিহত হয়।

বুরেজ ক্যাম্পটি তুলনামূলকভাবে ছোট শরণার্থী শিবির, যা গাজা উপত্যকার মাঝখানে অবস্থিত। ইউনাইটেড নেশনস রিলিফ অ্যান্ড ওয়ার্কস এজেন্সি ফর প্যালেস্টাইন রিফিউজিসের (ইউএনআরডব্লিউএ)  নিবন্ধিত প্রায় ৪৬ হাজার ফিলিস্তিনি শরণার্থীর আবাসস্থল হচ্ছে এই শিবির।

গত বৃহস্পতিবারও এই শিবিরে ইসরাইলি হামলার ঘটনা ঘটে এবং তাতে ১৫ জন নিহত হন। মূলত গত সপ্তাহে ইসরাইল গাজার অভ্যন্তরে শরণার্থী শিবিরগুলোতে অসংখ্য হামলা চালিয়েছে। সেগুলোও আবার প্রায়শই এমন সব এলাকায়, যা অবরুদ্ধ এই ভূখণ্ডের সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ কিছু এলাকা বলে পরিচিত।

ইসরাইল বলেছে, সশস্ত্র ফিলিস্তিনি গোষ্ঠী হামাসের কমান্ডারদের লক্ষ্যবস্তু করছে তারা। যদিও ইসরাইলের হামলায় নিহতদের বেশিরভাগই বেসামরিক নাগরিক।

পূর্বের খবরআদালতে দুদু, ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ
পরবর্তি খবরদেশে এসেছে ভারতীয় ডিম, দাম পড়েছে ৭ টাকা ২৩ পয়সা