কানায় কানায় পূর্ণ টুঙ্গিপাড়ার শেখ মুজিবুর রহমান কলেজ মাঠ

টুঙ্গিপাড়া (গোপালগঞ্জ): আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নির্বাচনী জনসভায় যোগ দিতে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী, সাধারণ মানুষ জড়ো হয়েছেন টুঙ্গিপাড়ার সরকারি শেখ মুজিবুর রহমান কলেজ মাঠে।

শেখ হাসিনার নিজের নির্বাচনী এলাকার (টুঙ্গিপাড়া-কোটালিপাড়া) এ জনসভায় যোগ দিতে শনিবার (ডিসেম্বর ৩০) ভোর থেকে এ মাঠে জড়ো হন স্থানীয়রা।

ঢাক-ঢোল, বাদ্যযন্ত্রের তালে নেচে-গেয়ে উৎসব করতে করতে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে মাঠে আসেন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। বেলা ১০টা নাগাদ পুরো মাঠ কানায় কানায় ভরে যায়।

নেতাকর্মী, আওয়ামী লীগ সমর্থকদের রঙিন পোশাক, হাতে লাল-সবুজ পতাকায় বর্ণিল সাজে সেজেছে শেখ মুজিবুর রহমান কলেজ মাঠ ও আশপাশের এলাকা।

নিজের পিতৃভূমিতে বঙ্গবন্ধুকন্যার আগমনে গোটা গোপালগঞ্জ, টুঙ্গিপাড়া-কোটালিপাড়ায় উৎসবের আমেজ।

সরকারি শেখ মুজিবুর রহমান কলেজ মাঠের এই নির্বাচনী জনসভায় কিছুক্ষণের মধ্যে বক্তব্য রাখবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সমাবেশস্থল নৌকার আদলে বিশাল মঞ্চ নির্মাণ করা হয়েছে। আশপাশের এলাকায় কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার জনসভা শেষে কোটালীপাড়ায় যাবেন শেখ হাসিনা। সেখানে একটি নির্বাচনী জনসভায় যোগদান শেষে মাদারীপুরে আরেকটি নির্বাচনী জনসভায় যোগ দেবেন তিনি। পরে সেখান থেকে ঢাকায় ফিরবেন শেখ হাসিনা।

দুই দিনের সফরে গতকাল শুক্রবার (২৯ ডিসেম্বর) সড়ক পথে বরিশাল যান শেখ হাসিনা। বিকেলে বরিশাল নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানে জনসভায় যোগদান শেষে সন্ধ্যায় নিজের পিতৃভূমিতে আসেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। নির্বাচনী এ সফরে শেখ হাসিনার সঙ্গে আছে তার ছোট বোন শেখ রেহানা।

শুক্রবার (ডিসেম্বর ৩০) সন্ধ্যায় টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন শেখ হাসিনা।

গত বুধবার (ডিসেম্বর ২০) সিলেটে হজরত শাহজালাল ও হজরত শাহ পরানের মাজার জিয়ারত এবং  এরপর সিলেটের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে নির্বাচনী জনসভার মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন আওয়ামী লীগ প্রধান।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

পূর্বের খবরখণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে বরিশালে প্রধানমন্ত্রীর জনসভাস্থলে আসছেন নেতা-কর্মীরা
পরবর্তি খবরঘরের ছেলে ঘরে ফিরে এসেছে: শেখ হাসিনা