আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ে প্রকাশ্যে স্ত্রীর চড় খান বিপাশার স্বামী!

বলিউডের একসময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী বিপাশা বসু। বিয়ের পর যেন বলিউড থেকে উধাও হয়ে গেছেন তিনি। এখন কন্যা দেবীকে নিয়েই ব্যস্ত আছেন বিপাশা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সব সময় স্বামী করণ সিং গ্রোভারের সঙ্গে ছবিও পোস্ট করেন তিনি। কিন্তু বিয়ের সাত বছর কাটতে চলল, তবু করণের পরকীয়া সম্পর্ক নিয়ে বলিপাড়ায় চর্চা থামেনি।

ধারাবাহিক জগত থেকে অভিনয় শুরু করেছিলেন করণ। তিন বছর হিন্দি ধারাবাহিকে কাজ করার পর ‘দিল মিল গায়ে’ সিরিয়ালের মাধ্যমে সাফল্যের স্বাদ পান তিনি।

অভিনয় জগতে নিজের পরিচিতি তৈরি হওয়ার পর টেলি অভিনেত্রী শ্রদ্ধা নিগমের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন করণ। কিন্তু তাদের সম্পর্ক বেশি দিন টেকেনি। মাত্র ১০ মাস এক ছাদের নিচে থাকার পর করণের সঙ্গে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন শ্রদ্ধা।

করণ যে ড্যান্স রিয়ালিটি শোয়ে প্রতিযোগী হিসেবে অংশগ্রহণ করেছিলেন, সেই শোয়ে করণের কোরিওগ্রাফার ছিলেন নিকোল অ্যালভারেস। নিকোলের সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন করণ। পরকীয়া সম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে আসায় করণ ও শ্রদ্ধার বিবাহবিচ্ছেদ হয়।

শ্রদ্ধার সঙ্গে বিচ্ছেদের তিন বছর পর সহ-অভিনেত্রী জেনিফার উইঙ্গেটকে বিয়ে করেন করণ। ‘দিল মিল গায়ে’ ধারাবাহিকের শুটিংয়ের বদৌলতে জেনিফারের সঙ্গে আলাপ হয় করণের। দীর্ঘ দিন সম্পর্কে থাকার পর বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন তারা।

জেনিফারের সঙ্গে করণের সম্পর্ক নিয়ে টেলিপাড়ায় আলোচনার বন্যা বয়ে যেত। টেলিভিশনের পর্দায় করণ এবং জেনিফারের জুটি দর্শকের মনে ধরেছিল। তারা বাস্তবেও একসঙ্গে থাকছেন জেনে এ তারকা জুটিকে দর্শকরা ভালোবাসায় ভরিয়ে দিয়েছিলেন।

কিন্তু করণ ও জেনিফারের সম্পর্কে চিড় ধরে। জেনিফার জানতে পারেন যে, করণের সঙ্গে নিকোলের আবার সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। এমনকি বিচ্ছেদের পরও সাবেক স্ত্রী শ্রদ্ধার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বজায় রেখেছিলেন করণ।

একই সঙ্গে দুই নারীর সঙ্গে পরকীয়া সম্পর্কে থাকার কথা জানতে পেরে যান জেনিফার। করণের সঙ্গে একই বাড়িতে থাকলেও কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছিলেন অভিনেত্রী। সেই সময় করণের সঙ্গে ‘দিল মিল গায়ে’ ধারাবাহিকের শুটিং করতেন জেনিফার।

বলিপাড়ায় কানাঘোষা চলছিল যে, দুজনের মধ্যে কথোপকথন বন্ধ থাকায় শুটিং ফ্লোরে একে অপরের সামনেও যেতেন না জেনিফার এবং করণ। এমনকি শুটিংয়ের সময়ও আলাদা করে নিয়েছিলেন তারা। একসঙ্গে কোনো দৃশ্যে অভিনয় করার না থাকলে তারা শুটিং ফ্লোরে অন্য সময়েই আসতেন।

জেনিফারের সঙ্গে অশান্তি হওয়ার পর শ্রদ্ধা ও নিকোলের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন করণ। নিজের ভুল বুঝেছেন বলে করণকে ক্ষমাও করে দেন জেনিফার। তাদের সম্পর্ক আবার জোড়া লাগে। কিন্তু আবার কিছু দিন পর তাদের সম্পর্কে তৃতীয় ব্যক্তির আবির্ভাব হয়।

‘কবুল হ্যায়’ নামের একটি হিন্দি ধারাবাহিকে কাজ শুরু করেন করণ। কানাঘোষা শোনা যায়, সেই ধারাবাহিকের প্রযোজক গুল খানের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েছিলেন করণ।

শুধু প্রযোজকের সঙ্গেই নয়, তার পাশাপাশি ধারাবাহিকের মুখ্য অভিনেত্রী সুরভি জ্যোতির সঙ্গে ধীরে ধীরে সম্পর্ক গভীর হতে থাকে করণের।

জেনিফারের কানে করণের সঙ্গে সুরভির সম্পর্কের কথা আসে। শুটিং শেষ হয়ে যাওয়ার পরও শুটিং সেটে সুরভির সঙ্গে করণ সময় কাটাতেন বলে জানতে পারেন জেনিফার।

করণ ও সুরভিকে হাতেনাতে ধরবেন বলে একদিন সোজা শুটিং ফ্লোরে পৌঁছে যান জেনিফার। সেখানে গিয়ে দুজনকে আপত্তিকর অবস্থায় ধরে ফেলেন অভিনেত্রী। রাগ সামলাতে না পেরে করণের গালে সপাটে চড় মারেন জেনিফার।

প্রথমবার ক্ষমা করে দিলেও দ্বিতীয়বার একই ভুলে ক্ষমা করতে পারেননি জেনিফার। তার সঙ্গে একই ছাদের নিচে থেকেও বারবার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার কারণে করণের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন জেনিফার।

দুই বছর সংসার করার পর ২০১৪ সালে করণ ও জেনিফারের বিচ্ছেদ হয়। বলিপাড়ার একাংশের দাবি, বিপাশা বসুর সঙ্গে ‘অ্যালোন’ ছবিতে কাজ করার সময় তার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন করণ। সেই কারণে নাকি করণকে ডিভোর্স দেন জেনিফার।

২০১৫ সালে ‘অ্যালোন’ নামের হরর ঘরানার হিন্দি ছবিটি মুক্তি পাওয়ার এক বছরের মধ্যেই বিপাশাকে বিয়ে করেন করণ। বিয়ের পর আর সে রকমভাবে অভিনয় করতে দেখা যায়নি কাউকেই। এখন কন্যাসন্তানকে নিয়েই ব্যস্ত রয়েছেন এই তারকা জুটি।

 

পূর্বের খবরআইনের দুর্বল প্রয়োগে বেড়েছে খেলাপি ঋণ
পরবর্তি খবর‘আমি ছাড়া কি বাংলাদেশ দলের বোলিং চলে না?’